ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিএনপির দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ, আহত ২০

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলায় স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে শহীদ মিনারে ফুল দেওয়া নিয়ে বিএনপির দুই গ্রুপের মধ্যে পাল্টাপাল্টি ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে ১০ পুলিশ সদস্যসহ অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন। আজ শুক্রবার (২৬ মার্চ ) সকাল ৭টার দিকে উপজেলা সদরের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনের সড়কে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, সকালে উপজেলা সদরের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ফুল দেওয়ার জন্য আসেন উপজেলা বিএনপির সদস্যসচিব নুরুজ্জামান লস্কর তপু ও উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেনের সমর্থকেরা। পৃথকভাবে ফুল দেওয়ার সময় তর্কাতর্কির জেরে উভয় পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি ও পাল্টাপাল্টি ধাওয়া শুরু হয়।

একপর্যায়ে উভয় পক্ষ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এ ঘটনায় ১০ পুলিশ সদস্যসহ অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে দেশীয় অস্ত্রসহ ছয়জনকে আটক করেছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) মো. রইছ উদ্দিন জানান,পুলিশ সদস্যদের মধ্যে সেকেন্ড অফিসার (এসআই) জাকির হোসেন বেশি আহত হয়েছেন। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, শুক্রবার সকালে উপজেলা সদরের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ফুল দেওয়ার জন্য আসেন উপজেলা বিএনপির সদস্যসচিব নুরুজ্জামান লস্কর তপু ও উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেনের সমর্থকেরা। ফুল দেওয়ার সময় তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। পরে ফেরার পথে উভয় গ্রুপ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও ছয় পুলিশ সদস্যসহ অন্তত ২০ জন আহত হয়েছে।

About newsroom

Check Also

আমরা সবাই বঙ্গবন্ধুর আদর্শের কর্মচারী: খাদ্যমন্ত্রী

নওগাঁ প্রতিনিধি: খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেছেন, নেতা-কর্মীরা যারা মাঠ পর্যায়ে কাজ করছেন, তারা কেউ …