‘মৃত সন্তান প্রসব ও গর্ভপাতের আরেকটি কারণ বায়ুদূষণ’

অনলাইন ডেস্ক: ভারত, বাংলাদেশ ও পাকিস্তানে প্রতিবছর প্রায় সাড়ে তিন লাখ গর্ভপাত ও মৃত সন্তান প্রসবের জন্য় বায়ুদূষণকে দায়ী করেছেন বিজ্ঞানীরা। চিকিৎসা বিষয়ক জার্নাল দ্য ল্যানসেটে প্রকাশিত এক গবেষণা প্রতিবেদনে এমন দাবি করেন তারা।

ওই দেশগুলোতে ২০০০ থেকে ২০১৬ সালের মধ্য প্রতিবছর যত গর্ভপাত ও মৃত সন্তান হয়েছে তার সাত শতাংশের জন্য় দূষিত বায়ুকে দায়ী করা হয়েছে।

বিশ্বের মধ্য দক্ষিণ এশিয়াতেই সবচেয়ে বেশি গর্ভপাত ও মৃত সন্তান প্রসবের ঘটনা ঘটে। চীনের ন্যাচারাল সায়েন্স ফাউন্ডেশন এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে চীনা বিজ্ঞানীরা গবেষণাটি করেছেন।

মোট ৩৪ হাজার ১৯৭ জন মায়ের তথ্য বিশ্লেষণ করে গবেষণাটি করা হয়। এই মায়েদের অন্তত একবার গর্ভপাত হয়েছে, কিংবা তারা একটি মৃত সন্তান প্রসব করেছেন। এবং তাদের প্রত্য়েকের এক বা একাধিক সন্তান রয়েছে।

এই মায়েদের মধ্য়ে ২৬ হাজার ২৮২ জন (শতকরা ৭৬ দশমিক নয় ভাগ) ভারতের, চার হাজার ২২৮ জন (শতকরা ১২ দশমিক চার জন) পাকিস্তানের ও তিন হাজার ৬৮৭ (শতকরা ১০ দশমিক আট ভাগ) জন বাংলাদেশের মা।

গবেষণার অন্যতম লেখক তিয়ানজিয়া গুয়ান বলছেন, গর্ভপাত কিংবা মৃত সন্তান প্রসবের ঘটনা মায়েদের উপর মানসিক, শারীরিক ও অর্থনৈতিক প্রভাব ফেলে। সে কারণে এসব ঘটনা কমানো গেলে ঐ দেশগুলোতে লিঙ্গসমতার সূচক ভালো হতে পারে।

এর আগে দ্য ল্যানসেটের আরেক প্রতিবেদন বলেছিল, ২০১৯ সালে ভারতে ১৬ লাখ ৭০ হাজার মানুষের মৃত্য়ুর কারণ ছিল বায়ুদূষণ, যা মোট মৃত্য়ুর ১৮ শতাংশ। একই কারণে ২০১৭ সালে মারা গিয়েছিলেন ১২ লাখ ৪০ জন।

সূত্র: ডয়েচে ভেলে

About newsroom

Check Also

বাংলাদেশে সবাইকে ছাড়িয়ে শীর্ষে তুর্কি অ্যাপ ‘বিপ’

অনলাইন ডেস্ক: ‘ব্যক্তিগত গোপনীয়তা’ সংক্রান্ত পরিবর্তন নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম হোয়াটসঅ্যাপ-এর বেকায়দা যেন কাটছেই না। …